গিলের ১৪ রানের আক্ষেপ

গিলের ১৪ রানের আক্ষেপ

স্পোর্টস ডেস্ক: বছরটা একটু অন্যরকমই কাটছে শুভমন গিলের।এই বছরে ২২ ইনিংসে ৫ সেঞ্চুরি ৬ ফিফটিতে ১২৯৯ রানে গিলের ধারে-কাছে নেই কেউ। সবার আগে এই বছরে ওডিআই ক্রিকেটে হাজার রান পূর্ণ করেছেন ভারতের এই টপ অর্ডার।

বছরের শুরুতে হায়দারাবাদে ওডিআই ক্যারিয়ারে দ্বিতীয় দ্রুততম ব্যাটার হিসেবে হাজারী ক্লাবের সদস্যপদ পেয়েছেন। ১৯তম ইনিংসে দ্বিতীয় দ্রুততম হাজার রানের রেকর্ডে নাম লিখিয়ে ২ হাজারী ক্লাবের সদস্যপদে দ্রুততম রেকর্ডে চোখ ছিল তার।

লক্ষ্যটা কঠিন কিছুই ছিল না। ২ হাজার থেকে ৬৭ রান দূরে বাংলাদেশের বিপক্ষে ইনিংস শুরু করতে এসে সে স্বপ্নই দেখেছেন। শরিফুলকে অফ সাইডে সিঙ্গল নিয়ে বিশ্বকাপে নিজের অভিষেক হাফ সেঞ্চুরির ইনিংসকে বড় করার সম্ভাবনা ছিল তার।

আর মাত্র ১৪ রান করতে পারলে হাশিম আমলার দ্রুততম ২ হাজার রানের (৪১ ম্যাচে ৪০ ইনিংস) রেকর্ড ভেঙ্গে ফেলতে পারতেন। তবে মিরাজের দ্বিতীয় ওভারের দ্বিতীয় বল তুলে খেলতে যেয়ে ডিপ মিড উইকেটে মাহমুদউল্লাহ’র রানিং ক্যাচে পরিণত হয়েছেন। শরীরের ভারসাম্য রেখে বাউন্ডারি রোপের ঠিক সামনে থেকে মাহমুদউল্লাহ যে ক্যাচটি নিয়েছেন, তা এক কথায় অসাধারণ।

৩৭তম ম্যাচে ৩৭তম ইনিংসটি ৫৩ রানে (৫৫ বলে ৫ চার, ২ ছক্কা) থেমে যাওয়ায় দ্রুততম ২ হাজারী ক্লাবের সদস্যপদে বেড়েছে তার প্রতীক্ষা।সম্ভাবনাটা এখনও শেষ হয়ে যায়নি। পরবর্তী ২ ম্যাচে ১৪ রান করতে পারলেই ওডিআই ক্রিকেটে দ্রুততম ২ হাজারী ক্লাবের সদস্যপদ পাবেন ভারতের এই নতুন ব্যাটিং সেনশেসন।

পোস্টটি ভালো লাগলে শেয়ার করে অন্যদের পড়ার সুযোগ করে দিন।

আমাদের ফেসবুক পেজ

আজকের দিন-তারিখ

  • বুধবার ,দুপুর ২:০৯
  • ২২ মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • ৮ জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  • ১৪ জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি

আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিন