চুয়াডাঙ্গায় শিশু হত্যা মামলায় এক যুবকের মৃত্যুদণ্ড

শিশু হত্যা মামলায় মোহাম্মদ মোমিন নামে এক যুবককে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সাথে তাকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। সোমবার (৬ নভেম্বর) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ দ্বিতীয় আদালতের বিচারক মাসুদ আলী এ রায় দেন। একই মামলায় অপর ২ আসামিকে ১৪ বছর করে সশ্রম কারাদণ্ড ও ২০ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়। অনাদায়ে আরো ৩ মাস করে বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।

দণ্ডপ্রাপ্ত মোহাম্মদ মোমিন চুয়াডাঙ্গা পৌর এলাকার তালতলা গ্রামের শহিদুল ইসলামের ছেলে। কারাদণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- একই গ্রামের মোতালেব হোসেনের ছেলে পারভেজ আহম্মেদ ও জামাত আলীর ছেলে আশরাফুজ্জামান রিজন। এরমধ্যে আসামি পারভেজ আহম্মেদ পলাতক। মামলার এজাহার সূত্র জানায়, ২০২২ সালের ১৯ জানুয়ারি বিকেলে নিখোঁজ হন চুয়াডাঙ্গা পৌর এলাকার তালতলা গ্রামের আব্দুল বারেকের ছেলে ও ভিক্টোরিয়া জুবিলি সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণির ছাত্র আবু হুরায়রা। কয়েকদিন খোঁজাখুঁজি করে না পেয়ে ২৫ জানুয়ারি শিশু আবু হুরায়রার বাবা আব্দুল বারেক বাদী হয়ে মোহাম্মদ মোমিনসহ ৫ জনের নাম উল্লেখ করে সদর থানায় মামলা করে।

পরে অভিযান চালিয়ে মোমিনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। তার দেয়া তথ্যের ওপর ভিত্তি করে ১৪ ফেব্রুয়ারি রাত ২টার দিকে তালতলা কবরস্থানের একটি পুরাতন কবর থেকে আবু হুরায়রার অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধার করা হয়। মামলার তদন্ত শেষে ২০২২ সালের ১৪ আগস্ট মোহাম্মদ মোমিন, পারভেজ আহম্মেদ ও আশরাফুজ্জামান রিজনকে অভিযুক্ত করে আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা চুয়াডাঙ্গা সদর থানার পরিদর্শক মিজানুর রহমান।

সহকারী পাবলিক প্রসিকিউটর (এপিপি) অ্যাডভোকেট গিয়াস উদ্দিন জানান, ১৩ জন স্বাক্ষ্যগ্রহণ শেষে সোমবার দুপুরে ওই রায় দেন বিচারক। তাদের মধ্যে আসামি পারভেজ আহম্মেদ পলাতক। তাকে দ্রুত গ্রেপ্তারে পরোয়ানা জারি করা হয়েছে।

পোস্টটি ভালো লাগলে শেয়ার করে অন্যদের পড়ার সুযোগ করে দিন।

খুলনার সময়

একটি সৃজনশীল সংবাদপত্র

আমাদের ফেসবুক পেজ

আজকের দিন-তারিখ

  • বুধবার ,দুপুর ১:৫০
  • ২২ মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • ৮ জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  • ১৪ জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি

আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিন