মায়ের সঙ্গে ভোট দিলেন পুতুল, সেলফি তুললেন রাদওয়ান মুজিব

শেখ হাসিনা

খুলনার সময়: দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোটগ্রহণ শুরু হয় গতকাল রোববার সকাল ৮টায়। আওয়ামী লীগ সভাপতি, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সকালে ঢাকা সিটি কলেজ কেন্দ্রে ভোট দিয়েছেন। একই কেন্দ্রে ভোট দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী কন্যা সায়মা ওয়াজেদ পুতুল। ভোটগ্রহণ বিরতিহীন চলবে বিকাল ৪টা পর্যন্ত। এদিন সকাল ৭টা ৫৫ মিনিটে প্রধানমন্ত্রী তার ছোট বোন শেখ রেহানা, মেয়ে সায়মা ওয়াজেদ ও শেখ রেহানার ছেলে রাদওয়ান মুজিব সিদ্দিককে নিয়ে ভোট কেন্দ্রে পৌঁছান। এ সময় ঢাকা-১০ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ফেরদৌস আহমেদ তাদের স্বাগত জানান। প্রধানমন্ত্রীর ভোটপ্রদান শেষে বঙ্গবন্ধুর দৌহিত্র রাদওয়ান মুজিব সিদ্দিক মোবাইল ফোনে সেলফি তোলেন। এদিকে ভোট দেওয়ার পর শেখ হাসিনা বলেন, নৌকা মার্কার জয়লাভ হবে। আবারও তারা জনগণের সমর্থন নিয়ে সরকার গঠন করবেন। বাংলাদেশ যে উন্নয়নশীল দেশের মর্যাদা পেয়েছে তা, বাস্তবায়ন করতে পারবেন জনগণের ওপর এ বিশ্বাস তার আছে। তিনি আরও বলেন, ‘নির্বাচনটা সুষ্ঠুভাবে করতে পারছি। এজন্য জনগণের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই। অনেক বাধা ছিল, বিপত্তি ছিল। দেশের মানুষ তাদের ভোটের অধিকার সম্পর্কে সচেতন হয়েছে। ভোট দেওয়ার পরিবেশ আমরা তৈরি করতে পেরেছি।’ বিএনপি জ¦ালাও-পোড়াওয়ের অনেক ঘটনা ঘটিয়েছে মন্তব্য করে আওয়ামী লীগ সভাপতি বলেন, ‘জঘন্য কাজগুলো যারা করেছে, তারা গণতন্ত্র বিশ্বাস করে না। দেশের মানুষের কল্যাণও চায় না। গণতান্ত্রিক ধারা চায় না। আমাদের সামনে আরও কাজ আছে, সেগুলো শেষ করতে চাই।’ গুলশানে ভোট দিলেন শেখ রেহানা : রাজধানীর গুলশান মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজ কেন্দ্রে ভোট দিয়েছেন বঙ্গবন্ধুর ছোট মেয়ে শেখ রেহানা। গতকাল রোববার বেলা পৌনে ১২টার দিকে তিনি ঢাকা-১৭ নির্বাচনি এলাকার এ ভোটকেন্দ্রে গিয়ে তার ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। এ সময় সঙ্গে তার ছেলে রাদওয়ান মুজিব সিদ্দিক ববি এবং এ আসনের আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মোহাম্মদ আলী আরাফাতসহ আওয়ামী লীগের বেশ কয়েকজন নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন। এর আগে গতকাল রোববার সকালে রাজধানীর সিটি কলেজ কেন্দ্রে ভোট দেন বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সকাল ৭টা ৫৫ মিনিটে প্রধানমন্ত্রী তার ছোট বোন শেখ রেহানা, মেয়ে সায়মা ওয়াজেদ ও শেখ রেহানার ছেলে রাদওয়ান মুজিব সিদ্দিককে নিয়ে ভোটকেন্দ্রে যান। এ সময় ঢাকা-১০ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ফেরদৌস আহমেদ তাদের স্বাগত জানান। ভোট দেওয়ার পর প্রধানমন্ত্রী বলেন, জনগণ যাকে খুশি ভোট দিক। কিন্তু নির্বাচনটা যেন সুষ্ঠু হয় এটাই আমরা চাই। আমরা জনগণের সব রকম সহযোগিতা চাই।

পোস্টটি ভালো লাগলে শেয়ার করে অন্যদের পড়ার সুযোগ করে দিন।

আমাদের ফেসবুক পেজ

আজকের দিন-তারিখ

  • সোমবার ,রাত ১০:৫১
  • ১৭ জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • ৩ আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  • ১১ জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি

আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিন