শেখ রাসেল পদক পাচ্ছে ১১ শিশু-কিশোর

শেখ রাসেল পদক

খুলনার সময়: তৃতীয়বারের মতো আজ বুধবার জাতীয়ভাবে নানা আয়োজনে একযোগে সারা দেশে এবং বিদেশস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসগুলোতে পালিত হবে শেখ রাসেল দিবস। দিবসটিতে ১১ শিশু-কিশোরকে পদক দেওয়া হবে। গতকাল মঙ্গলবার আগারগাঁওয়ের আইসিটি টাওয়ারে বিসিসি অডিটরিয়ামে এক সংবাদ সম্মেলনে এ জানান তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, দিবসটি উপলক্ষে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের উদ্যোগে ১৮ অক্টোবর সবাই নিজ নিজ মন্ত্রণালয়/ বিভাগ/ দপ্তর/ সংস্থা/ প্রতিষ্ঠান প্রাঙ্গণে শেখ রাসেলের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করা হবে। এছাড়াও দিবসটিতে মন্ত্রণালয়/ বিভাগ/ দপ্তর/ সংস্থা/ প্রতিষ্ঠান বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করবে।

দিবসটি উপলক্ষে শেখ রাসেল অ্যানিমেশন ল্যাব, শেখ রাসেল স্কুল অব ফিউচারের পাইথন প্রোগ্রামিং প্রশিক্ষণ, শেখ কামাল আইটি ট্রেনিং ও ইনকিউবেশন সেন্টার, ১৩০টি উপজেলার ২৫ হাজার ১২৫ জন নারীর জন্য প্রশিক্ষণ কর্মসূচি এবং স্মার্ট ৩৩৩, স্মার্ট প্রেগনেন্সি মনিটরিং সিস্টেম, স্মার্টই-ট্রেড লাইসেন্স, শিক্ষার্থীদের সামষ্টিক মূল্যায়ন অ্যাপ ‘নৈপুণ্য’, সমন্বিত ই-টোলকালেকশন সেবা ‘একপাস’, কিশোর-কিশোরীদের সাইবার অপরাধ প্রতিরোধে টোল ফ্রি হেল্প লাইন সেবা ১৩২১৯ এবং ইউনিভার্সিটি ইনোভেশন হাবের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবং শেখ রাসেল পদক-২০২৩ ও স্মার্ট বাংলাদেশ পুরস্কার বিতরণ করবেন। এ ছাড়া ১০ হাজারটি শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাব, রোবটিক্স কর্নার, ৫৫৫টি জয় SET Center, DoICT#2041 SMART Tower এবং ইউনিভার্সিটি ইনোভেশন হাবের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করবেন।

অন্যদিকে, দেশের বিভাগ, জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে শেখ রাসেলের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ, র‌্যালি আয়োজন করা হয়েছে। মূল অনুষ্ঠান সরাসরি সম্প্রচার, সভা/সেমিনার আয়োজনসহ চিত্রাঙ্কন, রচনা, প্রেজেন্টেশন প্রস্তুত, শ্রেষ্ঠ শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাব নির্বাচন প্রতিযোগিতা আয়োজন করা হয়েছে। শেখ রাসেল জাতীয় শিশু-কিশোর পরিষদ চিত্রাঙ্কন, দাবা, ফুটবল, সাংস্কৃতিক ও শুটিং আয়োজনের মাধ্যমে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করবে। এছাড়াও জাতীয়ভাবে দেওয়া হবে শিক্ষা, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি, ক্রীড়া, বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন শিশু-কিশোর, শিল্পকলা ও সংস্কৃতি, খুদে প্রোগ্রামার, খুদে উদ্ভাবক, খুদে লেখক, ডিজিটাল স্কুল, ডিজিটাল এক্সিলেন্স মোট ১০টি ক্ষেত্রে ১১ জন শিশু-কিশোরকে শেখ রাসেল পদক ২০২৩ দেওয়া হবে। পদক হিসেবে দেওয়া হবে এক ভরি ওজনের স্বর্ণ। অনুষ্ঠানে স্মার্ট বাংলাদেশ পুরস্কার ২০২৩ দেওয়া হবে। সরকারি ও বেসরকারি পর্যায়ে সাধারণ এবং কারিগরি ক্ষেত্রে জাতীয় পর্যায়ে ১২টি পুরস্কার এবং জেলা পর্যায়ে দেওয়া হবে আরও ১২টি পুরস্কার। শেখ রাসেল অনলাইন কুইজ প্রতিযোগিতা ২০২৩ এ অংশগ্রহণকারী ১০ জন বিজয়ীকে পুরস্কার হিসেবে কোর আই-৭, ১১ জেনারেশনের ল্যাপটপ দেওয়া হবে। সংবাদ সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা কেউ যেন আর প্রতিষ্ঠিত করতে না পারে, সেজন্য শেখ রাসেলকে হত্যা করা হয়েছিল। কিন্তু শেখ রাসেলকে হত্যা করেও রাসেলের আদর্শ ও স্মৃতি মুছে ফেলতে পারেনি। শেখ রাসেল সবার স্মৃতিতে অমর হয়ে আছেন এবং সবার স্মৃতিতে থাকবেন দুর্জয় হয়ে। তিনি বলেন, শেখ রাসেলের নির্মল শৈশব, নির্ভীক, দুর্জয় এ প্রতিপাদ্যটির মাধ্যমে তার ব্যক্তিত্ব আমরা তুলে ধরার মধ্য দিয়ে বাংলাদেশসহ সারা বিশ্বের শিশু ও ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য নিরাপদ করব। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সচিব মো. সামসুল আরেফিনের সভাপতিত্বে আরও বক্তব্য রাখেন আইসিটি অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মোস্তাফা কামাল, শেখ রাসেল জাতীয় শিশু কিশোর পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক ব্যারিস্টার জাহাঙ্গীর হোসেন রনি। পরে প্রতিমন্ত্রী শেখ রাসেল দিবস ২০২৩ এর লোগো উন্মোচন করেন।

পোস্টটি ভালো লাগলে শেয়ার করে অন্যদের পড়ার সুযোগ করে দিন।

খুলনার সময়

একটি সৃজনশীল সংবাদপত্র

আমাদের ফেসবুক পেজ

আজকের দিন-তারিখ

  • রবিবার ,রাত ১২:০৭
  • ২৬ মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • ১২ জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  • ১৮ জিলকদ, ১৪৪৫ হিজরি

আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিন