সাতক্ষীরা পৌরসভার মেয়র হিসেবে তাজকিনের দায়িত্ব পালনে বাধা নেই

সাতক্ষীরা পৌরসভার মেয়র তাজকিন আহমেদকে বরখাস্ত করে মেয়রের আসন শূন্য ঘোষণাসংক্রান্ত সিদ্ধান্ত স্থগিত করেছেন হাইকোর্ট। তাঁর করা এক রিটের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে বিচারপতি মোস্তফা জামান ইসলাম ও বিচারপতি মো. আতাবুল্লাহর সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ আজ সোমবার রুলসহ এ আদেশ দেন। সাতক্ষীরা পৌরসভার মেয়র তাজকিন আহমেদের আসনটি শূন্য ঘোষণা করে গত ২৩ নভেম্বর প্রজ্ঞাপন জারি করে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগের পৌর–১ শাখা। দুর্নীতি, নাশকতা ও সরকারবিরোধী কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকার অভিযোগে ১২ জন কাউন্সিলরের করা অনাস্থা প্রস্তাব গৃহীত হওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে ওই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। একই সঙ্গে মন্ত্রণালয় থেকে জারি করা অপর এক প্রজ্ঞাপনে নতুন মেয়রের কার্যভার গ্রহণ করা পর্যন্ত পৌরসভার প্যানেল মেয়র-১ কাজী ফিরোজ হাসানকে প্রশাসনিক, আর্থিক ক্ষমতাসহ মেয়রের দায়িত্ব দেওয়া হয়। একই দিন চিঠি দিয়ে সাতক্ষীরা পৌরসভার মেয়রের শূন্য পদে ৯০ দিনের মধ্যে উপনির্বাচন করার জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে নির্বাচন কমিশন সচিবকে অনুরোধ করা হয়। ২৩ নভেম্বরের পৃথক প্রজ্ঞাপন এবং ওই চিঠির বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে রিট করেন তাজকিন। তিনি সাতক্ষীরা জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য ও পৌর বিএনপির সদস্যসচিব। আদালতে রিটের পক্ষে শুনানিতে ছিলেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী মো. রুহুল কুদ্দুস ও আইনজীবী তানভীর আহমেদ। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল তুষার কান্তি রায়। পরে আইনজীবী তানভীর আহমেদ প্রথম আলোকে বলেন, তাজকিন আহমেদকে বরখাস্ত করে মেয়রের আসনটি শূণ্য ঘোষণা, পৌরসভার প্যানেল মেয়র-১কে মেয়রের দায়িত্ব দেওয়াসংক্রান্ত পৃথক প্রজ্ঞাপন এবং মেয়র পদে উপনির্বাচন করতে ইসিকে দেওয়া চিঠির কার্যকারিতা স্থগিত করেছেন হাইকোর্ট। ফলে মেয়র হিসেবে তাজকিনের দায়িত্ব পালনে আইনগত কোনো বাধা নেই।

পোস্টটি ভালো লাগলে শেয়ার করে অন্যদের পড়ার সুযোগ করে দিন।

খুলনার সময়

একটি সৃজনশীল সংবাদপত্র

আমাদের ফেসবুক পেজ

আজকের দিন-তারিখ

  • সোমবার ,রাত ১০:৩১
  • ১৭ জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • ৩ আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
  • ১১ জিলহজ, ১৪৪৫ হিজরি

আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিন