হরতালের সমর্থনে খুলনায় বিএনপির মিছিল, গ্রেপ্তার ২

দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনের তফসিল বাতিল, সরকারের পদত্যাগ এবং নির্দলীয় সরকারের অধীন নির্বাচনসহ একদফা দাবিতে মঙ্গলবার (১৯ডিসেম্বর) ভোর ৬টা থেকে সন্ধ্যায় ৬টা পর্যন্ত বিএনপি সকাল-সন্ধ্যা হরতাল চলাকালে নগরীতে খন্ড খন্ড বিক্ষোভ মিছিল করেছে বিএনপি ও অঙ্গদলের নেতা-কর্মীরা।সকাল ১১টায় নগরীর জিলাস্কুল এলাকা থেকে মিছিলের প্রস্তুতিকালে পুলিশ ৩ জনকে গ্রেপ্তার করেছে। তারা হলেন, যুবদলের মামুন হোসেন, জেলা ছাত্রদলের সাবেক সহ সভাপতি আবুল কাশেম। এছাড়া বেলা সাড়ে ১১টার দিকে মহানগর বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক চৌধুরী শফিকুল ইসলাম হোসেন এর নেতৃত্বে নগরীর শেরে বাংলা রোডে, জেলা যুবদলের সভাপতি শামীম কবীরের নেতৃত্বে একই সময়ে ইকবাল নগর এলাকায়, মহানগর বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক স ম আব্দুর রহমান ও শেখ সাদীর নেতৃত্বে ডাকবাংলো মোড় এলাকায় এবং বেলা আড়াইটার দিকে যুগ্ম আহবায়ক মাসুদ পারভেজ বাবু ও হাসানুর রশীদ মিরাজের নেতৃত্বে আহসান আহম্মেদ রোডে মিছিল অনুষ্ঠিত হয়। মিছিলগুলো বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিন করে এবং তফসিল বাতিল চেয়ে বিভিন্ন স্লোগান দিতে থাকেন। মিছিলে বিএনপি, যুবদল, ছাত্রদল, স্বেচ্ছাসেবকদল, মহিলা দলের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

ক্ষোভ ও নিন্দা: চলমান শান্তিপুর্ণ গনতান্ত্রিক আন্দোলনে পুলিশের বাধা-নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তারের তীব্র নিন্দা-ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন খুলনা বিএনপি নেতৃবৃন্দ। মঙ্গলবার (১৯ ডিসেম্বর) প্রদত্ত বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, সরকার ক্ষমতা চিরস্থায়ী করার জন্য বিএনপিসহ বিরোধীদের দমনে মরিয়া হয়ে উঠেছে। সরকার কথিত নির্বাচনের নামে তামাশা করে তাদের অবৈধ ক্ষমতা দীর্ঘায়িত করার গভীর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত। কিন্তু জনগণ তাদের সেই ষড়যন্ত্র কোনোভাবেই বাস্তবায়ন হতে দেবে না। সরকারকে টালবাহানা বন্ধ করে অবিলম্বে পদত্যাগ ও তত্ত্বাবধায়ক সরকারের হাতে ক্ষমতা হস্তান্তরের আহ্বান জানান। অন্যথায় তাদের জন্য করুণ পরিণতি অপেক্ষা করছে উল্লেখ করে নেতারা আরো বলেন, সরকার রাজনৈতিক প্রতিপক্ষকে রাজনৈতিক ও আদর্শিকভাবে মোকাবেলা করতে ব্যর্থ হয়ে দমন ও পীড়নের পথ বেছে নিয়েছে। তারা অবৈধ রাজনৈতিক উচ্চাভিলাষ চরিতার্থ করার জন্যই গণতন্ত্র ও গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ ধ্বংস করে দেশকে বর্বর ও অসভ্য রাষ্ট্রে পরিণত করার করার ষড়যন্ত্র করছে। কিন্তু জনগণ তাদের সে স্বপ্নবিলাস কখনোই বাস্তবায়িত হতে দেবে না বরং রাজপথের দুর্বার আন্দোলনের মাধ্যমে তাদের দেশ ও জাতিস্বত্ত্বাবিরোধী সকল ষড়যন্ত্র রুখে দেবে। অবিলম্বে গ্রেপ্তার ও গ্রেপ্তারের নামে বিএনপির নেতাকর্মীদের বাড়ি বাড়িতে হয়রানি বন্ধের দাবি জানান। একই সাথে তাবেদার সরকার পতনের লক্ষ্যে সকলকে রাজপথে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।

বিবৃতিদাতারা হলেন, বিএনপি জাতীয় নির্বাহী কমিটির ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক রকিবুল ইসলাম বকুল, তথ্য বিষয়ক সম্পাদক আজিজুল বারী হেলাল, মহানগর বিএনপির আহবায়ক এড. শফিকুল আলম মনা, জেলা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত আহবায়ক আবু হোসেন বাবু, মহানগর সদস্য সচিব শফিকুল আলম তুহিন, জেলা বিএনপির সদস্য সচিব মনিরুল হাসান বাপ্পী প্রমূখ।

পোস্টটি ভালো লাগলে শেয়ার করে অন্যদের পড়ার সুযোগ করে দিন।

খুলনার সময়

একটি সৃজনশীল সংবাদপত্র

ফেসবুক পেজ এ সব খবর

আজকের দিন-তারিখ

  • রবিবার ,বিকাল ৫:৫৭
  • ২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • ১২ ফাল্গুন, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
  • ১৫ শাবান, ১৪৪৫ হিজরি

আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিন



আপনার প্রতিষ্ঠানের বিজ্ঞাপন দিন